লন্ডনে সাংবাদিকের উপর আওয়ামী লীগ নেতার হামলা, মেরে ফেলার হুমকি

0
378
হাসপাতালে আহত সুমেল
হাসপাতালে আহত সুমেল

স্টাফ রিপোর্টার

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডঃ আব্দুল মোমেনের সম্প্রতি যুক্তরাজ্য সফর উপলক্ষে আয়োজিত এক সমাবেশে মন্ত্রীকে ফুল দিতে এক মহিলা সাংবাদিকের হাত থেকে স্থানীয় আওয়ামী লীগের এক নেতার ফুল ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনা ঘটে গত ২ সেপ্টেম্বর। ওই ঘটনা কয়েকটি অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশের জেরে সিলেট থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক আগামী প্রজন্মের লন্ডন প্রতিনিধি এস এম শামসুর রহমানের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে ওই আওয়ামী লীগের নেতার বিরুদ্ধে।

এস এম শামসুর রহমান লন্ডনে শামসুর সুমেল নামে পরিচিত। সম্প্রতি তিনি ‘ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর লালিত সূর্য বালকের হাতে ছিনতাইয়ের শিকার হলেন লন্ডনে মহিলা সাংবাদিক ’ এই শিরোনামে একটি কলাম লিখেন। যা ৫২ টিভি অনলাইন নিউজ পোর্টালে ১১/৯/২০২১ তারিখে প্রকাশিত হয়। সেখানে উল্লেখ করা হয়, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর লন্ডন সফরের সময় একটি সম্বর্ধনায় লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের মহিলা সদস্য পলি রহমানের কাছ থেকে জোর পূর্বক ফুল ছিনিয়ে নিয়ে যান আফসর খান সাদেক নামে লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগের এক নেতা। পরে ৫২ টিভি কর্তৃপক্ষ আওয়ামী লীগের নেতাদের অব্যাহত চাপের কারনে লেখাটি ডিলেট করে নেন। শামসুর সুমেল ওই লেখাটি পরিমার্জন ও সংশোধন করে তিনি বাংলা স্টেইটমেন্ট ডট কমে ‘ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার বাগানের আগাছা পরিস্কার করুন নয়তো পরে বুনো মহিষ হানা দেবে ’ এই শিরোনামে ১৪/৯/২১ তারিখে প্রকাশ করেন। সেখান থেকেও আওয়ামী লীগ নেতাদের নানামুখি চাপে লেখাটি ১৮/৯/২১ তারিখে মুছে ফেলা হয়।
ওই ঘটনার পর থেকে শামসুর সুমেল বিশ্বের বিভিন্ন দেশের আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছ থেকে ফোনে হুমকি পান। ওইসব ফোনের হুমকিতে বলা হয়, সুমেলের রক্ত দিয়ে কালি বানিয়ে তার শেষকৃত্য করা হবে। ওসব হুমকির পরে গত সোমবার সুমেল ইষ্ট লন্ডন মসজিদ থেকে জোহরের নামাজ পড়ে বাসায় যাবার সময় আওয়ামী লীগ নেতা আফসর খান সাদেক তার উপর হামলা করে। সাদেক পেছন থেকে হঠাৎ করে এসে সুমলেকে বেধড়কভাবে শারীরিকভাবে আঘাত করে পালিয়ে যান। হামলার সময় সাদেকের পেছনে থাকা একটি ব্যাগ থেকে কিছু একটা বাহির করার চেষ্টা করেন। তা দেখে ভয়ে আবার মসজিদের দিকে দৌড়ে যান এবং সেখানে উপস্থিত কয়েকজনকে বিষয়টি অবহিত করেন। সেখানে সুমেলের শুভাকাংখিরা তাকে পুলিশে রিপোর্ট করার পরামর্শ দেন। তাদের পরামর্শে সুমেল পুলিশে রিপোর্ট করলে তার নিবন্ধন করা হয় ৪২২৭৭৪৩ এই নম্বরে এবং তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে ব্রিটিশ পুলিশ জানায়।
সুমেল তার উপর হামলার ঘটনা পুলিশকে জানানোর পর একইদিনে বিষয়টি অবহিত করেন ব্রিটেনের বাংলার মিডিয়ার প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের কর্তৃপক্ষকে। প্রেসক্লাবের ট্রেজারার তাকে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার এবং সেক্রেটারী তাকে প্রেসক্লাবে লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরামর্শ দেন। প্রেসক্লাব কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সুমেলের উপর হামলার অভিযোগ বিষয়ে এক্সিকিউটিভ কমিটি আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিবে । ওই বিষয়ে প্রেসক্লাবের যা যা করনীয় সবই করবে প্রেসক্লাব।

সুমেলের সর্বশেষ অবস্থা জানতে তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ‘এখনো নানা মুখি হুমকির মুখে আছি।পুলিশ অভিযোগ প্রত্যাহার করে সামাজিক ভাবে সমাধান করার জন্য পরামর্শ দিয়েছে। তিনি আরো জানান, ওই বিষয়ে আর বাড়াবাড়ি না করে চুপ করে থাকার পরামর্শ দিয়েছে আফসর সাদেকের লোকজন। অন্যথায় আমাকে ফেলার হুমকি দেয়া হচ্ছে নানাভাবে। ‘

শামসুর সুমেলের উপর হামলার বিষয়ে লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগের নেতা আফসর খান সাদেকের সাথে সাংবাদিকরা যোগাযোগ করলে তিনি হামলা বিষয় অস্বীকার করেন।

 

Comments

comments