সন্দ্বীপে সাবেক ছাত্রদল নেতার বাড়িতে ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগ

0
28

স্টাফ রিপোর্টার:

চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপ উপজেলা ছাত্রদল ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক নেতা, বর্তমানে  লন্ডন মহানগর জাসাস এর সহ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও যুক্তরাজ্যের নিউহ্যাম বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মু: কামরুল আহসান রাসেলের বাংলাদেশের গ্রামের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে  আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা।

জানা যায়, গত রোববার সন্দ্বীপ উপজেলায় কামরুলের মুছাপুরের গ্রামের বাড়িতে স্থানীয় সরকার দলীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা দেশিয় অস্ত্র-সশ্র নিয়ে হামলা চালিয়ে লুটপাট করে ঘরের মূল্যাবান জিনিসপত্র নিয়ে যায় এবং পরে এক পর্যায়ে আগুন লাগিয়ে পুরো বাড়ি-ঘর ভষ্মিভূত করে দেয় । এই ঘটনায় পুরো এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা দীর্ঘদিন যাবত কামরুলকে সরকারের কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে ফেইসবুকে লিখালিখি বন্ধ করতে বলে। আর তা না হলে লন্ডন থেকে দেশে আসলে হত্যার হুমকিও দিয়ে আসছিলো । গত কয়দিন পূর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা , বিএনপি চেয়ারপারসন ও তিন বারের সাবেক প্রধান মন্ত্রী খালেদা জিয়াকে নিয়ে কটুক্তি করার প্রতিবাদ জানিয়ে অনলাইনে কিছু লিখা লিখি করেন যার রেশ ধরে সরকার দলীয় ক্যাডারা সাবেক ছাত্রদল নেতা ও বর্তমান যুক্তরাজ্য বিএনপি নেতা কামরুলের বাড়ি ঘর ভাংচুর করে আগুন দিয়ে পুরোপুরি ভষ্মিভূত করে । সরকার দলীয় ক্যাডারদের হুমকিতে কামরুলের পরিবারের অন্য সদস্যরা এলাকা ছেড়ে চলে যায় । এই ব্যাপারে থানা পুলিশকে অবহিত করলেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি । উল্টো পুলিশ কামরুলের পরিবারের সদস্যদের দূরব্যাবহার করে থানা থেকে বের করে দেয় ।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা: সাহাদাত হোসেন,সাধারন সম্পাদক ,আবু সুফিয়ান এবং সন্দ্বীপ উপজেলার বিএনপির সভাপতি সাবেক সাংসদ মোস্তফা কামাল পাশা ও সাধারন সম্পাদক জামসেদুর রহমান এবং যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম.এ মালেক ও সাধারন সম্পাদক কয়ছর আহমেদ  এবং নিউহ্যাম বিএনপির সভাপতি,সাধারন সম্পাদক এবং লন্ডন মহানগর জাসাস এর সভাপতি সাধারন সম্পাদক এই মধ্য যুগীয় বর্বরোচিত হামলা ও আগুন জ্বালিয়ে বাড়ি ধংস করে দেওয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ।  তারা  অবিলম্বে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনারও দাবী জানান । উল্লেখ, এর আগেও এই ছাত্রদল নেতার বাড়িতে কয়েক দফায় সরকার দলীয় ক্যাডাররা হামলা চালিয়েছিলো ।

Comments

comments